ড্যাফোডিলে ‘বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ-২০১৭’ উদ্‌যাপন



‘মাতৃদুগ্ধ পান টেকসই করতে আসুন ঐক্যবদ্ধ হই’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সন্তানকে বুকের দুধ পান করানোর উপকারিতার বৈজ্ঞানিক প্রমাণ সম্পর্কে জনসচেতনা তৈরির লক্ষ্যে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে উদ্‌যাপন করা হয় ‘বিশ্ব মাতৃদুদ্ধ সপ্তাহ ২০১৭’।

এ উপলক্ষে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি পুষ্টি ও খাদ্য প্রকৌশল বিভাগ আলোচনা সভা, র‌্যালি, সেমিনার, কর্মশালাসহ সপ্তাহব্যাপী নানা কর্মসূচি গ্রহণ করে।     

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুবুল হক মজুমদারের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গের অংশগ্রহণে গত ৬ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন ক্যাম্পাস থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল হক ও পুষ্টি ও খাদ্য প্রকৌশল বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. প্রফেসর মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, ফ্যাকাল্টি মেম্বার সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।


র‌্যালি শেষে ‘মাতৃদুগ্ধ পান টেকসই করতে আসুন ঐক্যবদ্ধ হই’ এই শ্লোগানের উপড় ভিত্তি করে বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার হামিদুল হক খান বিশেষ অতিথি ও অ্যালাইড হেলথ সায়েন্স অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. এ. আই. মোস্তফা সম্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। সভায় প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পুষ্টি ও খাদ্য প্রকৌশল বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. প্রফেসর মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন এবং বক্তা হিসাবে উপস্থিত বাংলাদেশ ব্রেস্ট ফিডিং ফাউন্ডেশনের বিভাগীয় কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল ইসলাম।

সেমিনারে বক্তরা বলেন মাতৃদুগ্ধ পানে শিশু মৃত্যুর হার কমায় এবং শিশুর সঠিক বিকাশের মাধ্যমে একটি স্বাস্থ্যবান জাতি তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তারা আরো বলেন একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় শিশুকে যোগ্য করে গড়ে তুলতে হলে এ বিষয়ে এখনই সার্বিক প্রদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

More news