আমার আমিতে বেনজির



বেনজিরের ছোটবেলা কেটেছে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার শিলরীতে। দুরন্ত শৈশবে অন্যদের তুলনায় বেশ শান্তই ছিলো বেনজির। দুষ্টু ছেলে না হলেও বেনজিরের ছেলেবেলা ছিলো অনেক বর্ণিল। শৈশব মানেই তার কাছে বাবার সাথে গ্রামের মাঠে ঘুড়ি উড়ানো, ভাইদের সাথে বাড়ির উঠোনে ক্রিকেট, ফুটবল খেলা!

বেনজিরের বাবা অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন বাহার আছেন আইনপেশায় আর মা কাজি ফরিদা ইয়াসমিন আছেন শিক্ষকতায়। দুই ভাই, এক বোনের মধ্যে বেনজির সবার বড়।

স্কুল ও কলেজ জীবন নিয়ে আবরার বলেন- “গর্বের ব্যাপার হচ্ছে আমার প্রথম স্কুল লিটল ফ্লাওয়ার কিন্ডার গার্টেনএর প্রথম শিক্ষার্থী ছিলাম আমি! গ্রামের এই স্কুলটিতে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ার পর ভর্তি হই চৌদ্দগ্রামের পদুয়া সুফিয়া রহমান হাইস্কুলে। আমার বাবা ছিলেন তখনকার স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। কলেজ কেটেছে কোটবাড়ির ঐতিহ্যবাহী কুমিল্লা সিটি কলেজএ।

ভালো একজন মানুষ হবার স্বপ্নধারী বেনজির জীবনের আইডল মানেন ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবালকে। তার ব্যক্তিত্ব দারুণ ভাবে নাড়া দেয় বেনজিরকে। এছাড়া ইউজিসির সাবেক চেয়ারম্যান ড. একে আজাদ চৌধুরীকেও জীবনের আইডল মানে বেনজির

অবসরে ছোট ভাইবোন, বন্ধুদের সাথে সময় কাটাতে পছন্দ করা বেনজিরের কাছে শখ মানেই নিয়মিত নতুন বই পড়া!

আর তরুণদের উদ্দেশ্যে বলবো, “মানুষের জন্য কাজ করায় কখনো পিছপা না হওয়াই প্রকৃত মানুষের কাজ। মানুষ আপনার কথা একটা না একটা সময় শুনবেই, হতাশ হওয়া যাবে না। প্রত্যেকে নিজের জায়গা থেকে দেশের ভালো দিকগুলো উপস্থাপন করুণ আর নিজেও ভালো ভালো কাজ করুণ। আমি সবসময়ই আশাবাদী মানুষ!”

স্টামফোর্ডের বেনজিরএকটি পজেটিভ বাংলাদেশ’ আমার স্বপ্ন

সাংগঠনিক শিক্ষায় শিক্ষিত বেনজির!


সাংবাদিকতা পেশাটাকে প্রচন্ড শ্রদ্ধা করি


এসডিএফর বিতার্কিক বেনজির


অনুপ্রেরণা আর অভিজ্ঞতায় পথচলা


বেনজিরের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কার্যক্রম


আমার আমিতে বেনজির


ক্যাম্পাস প্রতিনিধি

More news