অভিনয়কে সাথে করেই বাকি জীবন



অর্থ, বিত্ত, দায়িত্ব, বেঁচে থাকা। বাস্তবের এসব বড় বড় শব্দের মাঝে শিল্পী হারিয়ে যায়। গোলাম ইমরান হারাতে চান না। নিজের প্যাশন অভিনয়কে নিয়েই চলতে চান। অল্প কিছুদিন হলো চাকরিতে ঢুকেছেন। কিন্তু এই ফাঁকেই টুকটাক চালাচ্ছেন প্যাশনের কাজ।

মঞ্চে ওথেলো করার খুব ইচ্ছে। প্রিয় অভিনেতার তালিকায় আছেন মার্লোন ব্রান্ডো, রবার্ট ডি নিরো, গ্রেগরি পেক, আল পাচিনো। ইমরানের মতে, গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ এর সব লেখা পুরোপুরি ভেজে খেয়েছেন। এখনো একটু সময় পেলে বই খুলে বসেন। বাসে, লেগুনায়, ফুটপাথে ইমরান যেখানেই থাকুক একটা বই সঙ্গে থাকেই। নীল রঙটা সবসময় টানে তাকে

একবার রিহার্সেলের নির্দিষ্ট সময়ের পরে জয়েন করেছিলেন। ঠিকঠাক ভাবে পারছিলেন না অভিনয় করতেপ্রশিক্ষক এসে বলেছিলো, “অভিনয়টা হবে না আপনাকে দিয়ে”। সেই প্রশিক্ষক বুকে জড়িয়ে নিয়েছিলেন মঞ্চে অভিনয়ের পরে। সেই প্রেরণা তাকে এখনো উজ্জীবিত করে।

ইন্টারভিউ নেবার শুরুতেই জেনেছিলাম, বাবার জন্যই এত ইংরেজি সাহিত্যপ্রিয় হয়েছেন ইমরান। সেই বাবা চলে গেলেন নতুন বছর(২০১৭) আসার ঠিক ১৩ দিন আগে। যেখানেই থাকুক ইমরানের বাবা, তিনি ঠিক দেখে নিবেন তার সাদাসিধে ইমরান জগৎ জয় করছে নিজের অভিনয় প্রতিভা দিয়ে। সেই ভরসাতেই চলুক ইমরানের পথচলা। 

ইমরান: সাদাসিধে ছেলেটির অভিনেতা হবার গল্প!

বই আর সিনেমায় ডুবে কেটে যায় ছেলেবেলা


অভিনয়টা শুরু হলো NSU ক্যাম্পাস থেকে


অভিনয়কে সাথে করেই বাকি জীবন


নিজস্ব প্রতিবেদক, ছবিঃ ইমরানের ফেসবুক টাইমলাইন

More news