মালয়শিয়াতে কম্পিউটার সাইন্স



আমেরিকা, ইউরোপ! এত টাকা! বিদেশী ডিগ্রী! আর নেয়া হল নাভাবাভাবির দিন শেষমালয়শিয়া, স্বল্প খরচে বিশ্ব মানের শিক্ষা প্রদান করার ক্ষেত্রে খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠছেপ্রায় ১০০টি দেশের ৭০০০০ হাজার ছাত্র-ছাত্রী এখানে পড়াশুনা করছেআপনিও স্বল্প খরচে পছন্দের ডিগ্রীটি নিতে পারেনপ্রযুক্তির দুনিয়া! কম্পিউটার সাইন্স হতে পারে আপনার পছন্দের বিষয় যা আপনার সামনে খুলে দিবে বিশাল চাকরির বাজার

কম্পিউটার সাইন্স

কম্পিউটার সাইন্সে ডিপ্লোমা এবং অনার্স দুই ধরনের ডিগ্রীই নিতে পারেনমালয়শিয়াতে ডিপ্লোমা সাধারণত দুই বছর ছয় মাসের কোর্স এবং অনার্স তিন বছরের কোর্সতবে অনার্সের ক্ষেত্রে ২+১  প্রোগ্রামটা বেশি জনপ্রিয় কেননা এই প্রোগ্রামে দুই বছর মালয়শিয়াতে পড়ার পর আপনি পরবর্তী  এক বছর আমেরিকা, ইউরোপ অথবা ওশেনিয়ার বিভিন্ন দেশে গিয়ে পড়তে পারেন অথবা মালয়শিয়াতে থেকেই ঐ দেশসমূহের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শাখা থেকে ডিগ্রী নিতে পারেন।

যোগাযোগের মাধ্যম

যে ধরনের ডিগ্রীই আপনি করতে চাননা কেন আপনাকে প্রথম যেটা করতে  হবে তা হল পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয় খুঁজে বের করাতারপর আপনি দুই ভাবে তাদের  সাথে যোগাযোগ করতে পারেন-

১। সরাসরি বিশ্ববিদ্যালইয়ের ঠিকানায় মেইল করে অথবা

২। বাংলাদেশে অবস্থিত মালয়শিয়ান দূতাবাসের মাধ্যমে

আপনার আবেদনে যদি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃ্পক্ষ সাড়া দেয় তবে আপনি শুরু করতে পারেন আপনার ভিসা প্রক্রিয়াকরণ কাজ

পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়

যদি আপনি অনার্স ডিগ্রী নিতে চান তবে আপনার পছন্দের তালিকায় থাকতে পারে এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো:

ইউনিভার্সিটি সাইন্সমালয়শিয়া, ইউনিভার্সিটি মালয়, ইউনিভার্সিটি টেকনোলোজিমারা, ইউনিভার্সিটি টেকনোলোজি মালয়শিয়া, ইউনিভার্সিটি কুয়ালালামপুর, মালয়শিয়া ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলোজি, আল-মদিনা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব মালয়শিয়া

আর আপনি যদি ডিপ্লোমা কোর্স করতে চান তবে আপনি বেছে নিতে পারেন এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো:

মাল্টিমিডিয়া ইউনিভার্সিটি, নিলাই ইউনিভার্সিটি, হেল্প ইউনিভার্সিটি, ইসলামিক ইন্টারন্যাশনাল কলেজ, টেকনোলোজি কলেজ সারাওয়াক, সেজি ইউনিভার্সিটি

ইংরেজিতে যোগ্যতা

মালয়শিয়াতে বেশিরভাগ কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা মাধ্যম হল ইংরেজি। যদিও সকল প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে হলে ইংরেজিতে বিশেষ পারদর্শিতার দরকার হয়না তাবে কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানে হয় যেমন- আই আই উ এম এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ডিগ্রী নিতে হলে অন্তত IELTS এ ৬ পয়েন্ট এবং TOFEL এ ৫৫০ নম্বর থাকতে হবে যদি এগুলো না থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দিষ্ট ইংরেজির পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে কেবলমাত্র পাশ করলেই আপনি ভর্তি হতে পারবেনঅন্য দিকে অবশ্য কিছু বিশ্ববিদ্যালয় আপনাকে পরবর্তীতে ইংরেজিতে বিশেষ কোর্স করার সুযোগ দিবে

খরচ

টিউশন ফি বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে ভিন্ন ভিন্ন হয়। সর্ব নিম্ন ৫ লাখ থেকে সর্বোচ্চ ৯ লাখ টাকায় আপনি অনার্স ডিগ্রী নিতে পারেন অন্যদিকে যদি ডিপ্লোমা কোর্স করতে চান তবে আপনি ৪ লাখ থেকে ৬ লাখ টাকার মধ্যে কোর্স সম্পন্ন করতে পারবেনএছাড়াও খাওয়া-দাওয়া খরচ হিসেবে বছরে আপনাকে প্রায় ১ লাখ টাকার মত ব্যয় করতে হবেঅর্থাৎ আপনি ৬ থেকে ৭ লাখ টাকার মধ্য কম্পিউটার সাইন্সে অনার্স ডিগ্রী নিতে পারেন

কাজের সুযোগ

মালয়শিয়াতে আরেকটি বড় সুযোগ হল পড়াশুনার পাশাপাশি কাজের সুযোগআপনার সেমিস্টার বিরতিতে অথবা সাত দিনের বেশি ছুটি থাকলে আপনি সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা কাজ করতে পারবেনযা আপনাকে অতিরিক্ত আর্থিক সুবিধা দিবে।

কি মনে হচ্ছে? হাতের নাগালেই তো সব তাই না? সপ্নটা পূরণ করতে লেগে পড়ুন এখনই এর পর.........? ক্যারিয়ার, সাফল্য!!!


তথ্যসূত্র: ফোরআইসিইউ ডটকম, ইউনিভার্সিটি মালোশিয়া ডটনেট এবং হটকোর্সেস মালেশিয়া


More news