সাগরতলে ভাস্কর্য জাদুঘর!!



প্রথমেই নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছে করছে কোথায়? বলছি, একটু ধৈর্য ধরুন ভাবুন তো পিঠে অক্সিজেনের টিউব বেধে ডুবুরি সেজে আপনি যাচ্ছেন সাগরতলে ভাস্কর্য দেখতে। কি রোমাঞ্চকর!! তাই না?

একটা দুটো ভাস্কর্য না। মোট ৩০০ টি ভাস্কর্য থাকবে! তাও নাকি প্রায় ৩০০ বছরের মত  টিকবে! প্রস্তুতকারীরা আরও দাবি করছেন, যে সব পদার্থ দিয়ে এই ভাস্কর্য তৈরি হচ্ছে তাতে সাগরের পানি বা জীবজগতের কোন ক্ষতি হবে না।  

সাগরতলের প্রায় ১৫ মিটার গভীরে স্থাপন করা হবে এই ভাস্কর্যগুলো। ভাস্কর্য তৈরি করছেন ব্রিটিশ ভাস্কর্য শিল্পী জেসন দ্যা-কেয়ারস টেইলর। এই জাদুঘর তৈরিতে খরচ হচ্ছে প্রায় ৭ লাখ পাউন্ডের মত। তৈরি করছে স্পেন।

ভাস্কর্যগুলোর প্রথমটি এক দম্পতি সেলফি তুলছে এ বিষয়ে প্রস্তুতকারীর মতামত হচ্ছে, প্রথমেই দর্শনার্থীদের জনপ্রিয় প্রযুক্তির ব্যবহার সংক্রান্ত তথ্য দিয়ে চমকে দেয়া। প্রকৃতপক্ষে এ জাদুঘরে একটা সম্প্রদায়ের দৈনন্দিন জীবনের নানা বিষয় তুলে আনা হয়েছে। এই জাদুঘর তৈরির একটা মূল উদ্দেশ্য মানুষ ও প্রকৃতির সাথে মেলন্ধন তৈরি করা।

জাদুঘর যে সম্প্রদায়কে কেন্দ্র করে তৈরি হয়েছে তারা স্পেনের ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের লানযারোত উপকূলের বাসিন্দা এ উপকূল আফ্রিকা এবং উইরোপের সেতুবন্ধন করেছে খুব কাছে আটলান্টিক মহাসাগরে অবস্থিত

ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের এই উপকূলের অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতি বছরই লাখ লাখ পর্যটক আসে। আর এই জাদুঘর হবে পর্যটকদের কাছে নতুন আকর্ষণপ্রুস্তুতকারীদের আশা পর্যটকের সংখ্যা আরও বেশি হবে

বিবিসি ডটকম এবং দ্যা লোকাল ডট ইএস অবলম্বনে 


More news