অর্জন যখন প্রত্যাশার অনেক ঊর্ধ্বে!



সত্যি বলতে আমার প্রত্যাশার অনেক ঊর্ধ্বে আমার অর্জনগুলো। আমি ভাবতেও পারিনি আমি এত অল্প সময়েই আমার স্বপ্নের পথে এতটা এগিয়ে যাব। আমি ভারত, থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়া, ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, ভেনেজুয়েলা, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া, চীন সহ প্রায় আঠারটি দেশ ভ্রমণ করেছি এই নাচের জন্য।

প্রায় প্রতিটাতেই আমি আমার প্রিয় দেশকে রি-প্রেজেন্ট করার সুযোগ পেয়েছি। তাই আমার চেষ্টাও ছিলো এদেশের ঐতিহ্য, সংস্কৃতিকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরাআমি শুধু আমার পারফরমেন্সের মাধ্যমে নয়, আমার নাচের পোষাক থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রপ’স যেখানেই সুযোগ পেয়েছি সেখানেই বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে তুলে আনতে চেয়েছি। আর আমার অর্জনগুলোর পিছনেও খুব বড় একটি কারণ এটি।

উড়িষ্যাতে ‘ইন্ডিয়ান থিয়েটার অলিম্পিয়াড’ এ ক্ল্যাসিক্যাল ড্যান্সে চ্যাম্পিয়ন, ১৫ তম গ্লোবাল ফিমেল ফোক ড্যান্স কম্পিটিশনে দ্বিতীয়, ইন্দোনেশিয়ার বালিতে অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল ড্যান্স চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণ পদক জিতেছিলাম। এগুলো আমার উল্লেখযোগ্য অর্জন।


এছাড়াও এ বছর আমি চীনের বেইজিং শহরে অনুষ্ঠীত ‘ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি-২০১৬’ প্রতিযোগিতায় বিশ্বের ৭০টি দেশের ৭০ জন প্রতিযোগীর মাঝে অষ্টম হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করি।

গ্রামীণফোনের ১ পয়সা প্রতি সেকেন্ডের বিজ্ঞাপনটির মাধ্যমে আমার অভিনয় জগতে আসাএই বিজ্ঞাপনটির জন্য আমি ‘সাঁকো টেলিফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’ অর্জন করি। এছাড়াও আমি গ্রামীণফোনের দুটি এবং ‘বাগডুম’ এর হয়ে বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেছি।

২০১৪ সালে র‍্যাম্প মডেলিংয়ে আমার পথ চলা শুরু। এরই মধ্যে আড়ং, রঙ, অ্যাম্বার, বাটা সহ বিভিন্ন প্রোডাক্টটের র‍্যাম্প ও মডেল ফটোশ্যুটে অংশ নিয়েছি। খুব ভাল লাগে যখন দেখি আমার বিলবোর্ড সারা দেশে শোভা পাচ্ছে।

বর্তমানে আমি ওয়ার্ল্ড আর্টিস্টিক ড্যান্স ফেডারেশনের একজন সদস্য এবং ওয়ার্ল্ড অ্যাসোসিয়েশন অব পারফর্মিং সংস্থার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিযুক্ত আছি। 

AUST’র অবনী: অর্জনগুলো আমার প্রত্যাশার অনেক ঊর্ধ্বে!

পাইলট হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে বেড়ে উঠেছি


অবনীর স্বপ্নের পথে যাত্রা


অর্জন যখন প্রত্যাশার অনেক ঊর্ধ্বে!


আহসানউল্লাহ’র ক্যাম্পাস লাইফ এনজয় করতে পারিনি


স্বপ্ন দেখি একটা ড্যান্স ইনস্টিটিউশনের


অবনীর আপন অনুভূতির দেয়াল


তুমি নষ্ট হতে না চাইলে কেউ তোমাকে নষ্ট করতে পারবে না


ক্যাম্পাস প্রতিনিধি

More news