উত্তর গুছিয়ে নিন ইন্টারভিউর আগেই



কক্ষনো ইন্টারভিউ বোর্ডে বসে এই প্রশ্নের উত্তর গোছাতে যাবেন না। তাহলে কথা বলার মাঝখানে খেই হারিয়ে আমতা আমতা করতে পারেন। তার চাইতে ইন্টারভিউর আগে থেকেই গুছিয়ে নিন নিজের কথাগুলো। গুছিয়ে নেওয়া উত্তরটা যেন ২ মিনিটের মধ্যেই শেষ হয়।

আপনার সম্পর্কে বলতে দিলে আপনি আপনার পরিবার, ভালো লাগা, মজার স্মৃতি ইত্যাদির ঝাঁপি খুলে বসার আগে ভাবুন, ইন্টারভিউর কর্মকর্তারা কি আপনার এই গল্প শুনতে ইচ্ছুক কিনা! নতুন পরিচিত কোন লোককে আপনি কাজের জন্য ডাকলে সে যদি তার অতীত স্মৃতি রোমন্থন শুরু করে আপনার ভালো লাগবে কি?

তাহলে আপনি সেটা করতে যাবেন কেন? আপনাকে ডাকা হয়েছে কোন বিশেষ কাজের জন্য তাহলে সেই এক্সপেরিয়েন্স দিয়েই শুরু করুন না!

ধরুন কোন কাস্টমার কেয়ারের কাজে আপনাকে ডাকা হয়েছে, আপনি শুরু করতে পারেন এভাবে “গত এক বছর ধরে আমি অমুক জায়গায় কাস্টমার কেয়ারে কাজ করেছি। এর আগে আমার এই এই কাজের এক্সপেরিয়েন্স ছিলো”

কিন্তু যদি আপনার অভিজ্ঞতা না থাকে তখন কিভাবে শুরু করবেন? একটু ট্রিকস খাটান। বলুন,  “কাস্টমার কেয়ারে প্রত্যক্ষ ভাবে কাজের অভিজ্ঞতা না থাকলেও, আমি অমুক অমুক জায়গায় জব করেছি”।

এ তো গেলো আপনার অভিজ্ঞতার কথা। বড়জোর ৩০ সেকেন্ড লাগল এই কথাগুলো বলতে। এরপরেও হাতে আছে ৯০ সেকেন্ডের মতো।

আসুন এবার আপনার  ability এবং strength নিয়ে কথা বলা যাকআপনি কি পারেন সেটা গুছিয়ে বলুন। এর মধ্যেই তুলে আনতে পারেন আপনার বিভিন্ন সৃজনশীল গুণের কথা।

এক ফাঁকে ঢুকিয়ে দিন ব্যক্তিগত জীবনের কথা। কথাগুলো এভাবে বলতে পারেন, “ব্যক্তিগত জীবনে আমি বাড়ির ছোট সন্তান। আমার মা বাবা আমি মিলে ঢাকায় থাকি”। অন্য ভাইবোনদের কথা যদি কর্মকর্তারা জিজ্ঞেস করে তো বলবেন, নাহলে এতটুকুই যথেষ্ট!

শেষ ১০ সেকেন্ডে বলবেন আপনার বর্তমান পরিস্থিতির কথা। কেন এই ধরণের জব খুঁজছেন, কি করতে চান, টিম ওয়ার্ক করতে কতটা ইচ্ছুক!

এভাবেই ২ মিনিটের মধ্যে নিজেকে খুব দারুণভাবে গুছিয়ে উপস্থাপন করা যায়। তবে হ্যাঁ, এটা একদিনেই হুট করে হবে না। ইন্টারভিউ দেবার আগে এক দুইবার আয়না দাঁড়িয়ে কথা বলে দেখতে পারেন। আপনার চোখে মুখে এইসব কথা বলার সময় কোনভাবেই বিরক্তি কিংবা হতাশাবোধ যেন না ফুটে উঠে।

আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে নিজেকে উপস্থাপন করাটা আপনাকে অনেকের মধ্যে অন্যতম করে তুলবে।

ইন্টারভিউতে প্রশ্ন: আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন!

উত্তর গুছিয়ে নিন ইন্টারভিউর আগেই


এই প্রশ্নের উত্তরে কখনোই যা বলবেন না!


নিজস্ব প্রতিনিধিছবিইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

তথ্যসূত্র: আন্ডারকভার রিক্রুয়েটার ডটকম, দি ইন্টারভিউগাইজ ডটকম, মনস্টার ডটকম 

More news