নতুন চাকরির আগে গুছিয়ে নিন নিজেকে



সবারই একসময় বেকার জীবন শেষ হয়। কারো একটু আগে,কারো ঠিক সময়ে আবার কারো একটু সময় করে। বেকার জীবনের সাথে যুক্ত হয়ে যায় অনিয়ম, অলসতা, হতাশা আর অবসাদ নামের শব্দগুলো। মনের মত একটা চাকরি পাবার পরে হতাশা আর অবসাদ যদিও সাথে সাথে চলে যায় কিন্তু ততদিনে অনিয়ম আর অলসতা অভ্যাস হয়ে যায়। তাই কর্মজীবনে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে চাইলে চাকরি পাবার পর, জয়েন করার আগে গুছিয়ে নিতে হবে নিজেকে।

বেকার জীবনে সবচেয়ে আপন হয় রাত জাগার অভ্যাস। কর্মক্ষেত্রে টিকে থাকতে হলে সবার প্রথমে ত্যাগ করতে হবে এই অভ্যাস। এপয়েন্টমেন্ট লেটার হাতে পাবার পরে আপনি হয়তো ৭ দিন থেকে শুরু করে এক মাস পর্যন্ত সময় পেতে পারেন, কোনো জায়গায় সাত দিনেরও কম। এই সময়ের মধ্যেই আপনাকে দূর করে ফেলতে হবে আপনার রাত জাগার অভ্যাস। নিয়ম করে কয়েকদিন ১১-১২ টা এর মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ে ভোর ছয়টায় উঠার অভ্যাস করুন বদ অভ্যাস না কেটে যাবেই না।

বেকার ছেলেমেয়েদের সবচেয়ে কমন অভ্যাস হচ্ছে সকালে নাস্তা না করা। চাকরি জীবনে শুরুতেই আপনাকে নিজের সারা জীবনের জন্য এই অভ্যাস নিষিদ্ধ করে ফেলতে হবে। সকালে ঠিকমত নাস্তা না করলে আপনার শরীর সারাদিন অবসাদে ভুগবে আর ব্রেইন হয়ে যাবে নির্জীব, নির্জীব মস্তিষ্ক নিয়ে অফিসে সুন্দর পারফর্মেন্স অসম্ভব!

অফিস থেকে আপনার বাসার দূরত্ব একটা গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্ট, এই রুটের বাস আর ট্রাফিক জ্যামের অবস্থাই নির্ধারণ করবে আপনার বাকি জীবন! তাই আপনার বাসা থেকে অফিস যাবার সবচেয়ে সহজ রাস্তা, সবচেয়ে ভালো বাস, কতক্ষণ সময়, কখন জ্যামটা বেশি থাকে এইসব খবর যোগাড় করে ফেলুন সরেজমিনে নিজ উদ্যোগে অফিস শুরু হবার আগেই।

আপনার অফিস আপনাকে লাঞ্চ প্রোভাইড করবে কিনা অথবা অফিসের সাথে কোনো হোটেল রেস্তোরাঁর চুক্তি আছে কিনা এসব খবর নিয়ে ফেলুন আগেই। এমন না হলে অফিসের আশেপাশের ভালো রেস্তোরাঁর খবর কিংবা আপনি বাসা থেকে লাঞ্চ ক্যারি করবেন কিনা আজই নির্ধারণ করে ফেলুন।

বেকার জীবন কিংবা ছাত্র জীবনের সাথে আপনার অফিস জীবনের পোশাক আশাক কখনোই মিলবে না, সেই অনুযায়ী বদলে ফেলুন নিজেকে সেগুলোকে বিদায় জানিয়ে সংগ্রহ করে ফেলুন ফরমাল আর কিছু ক্যাজুয়াল ড্রেস ছেলেদের ক্ষেত্রে অফিসভেদে প্রয়োজন হতে পারে টাই আর ঘড়ি।

শুধু তাই নয় পরিবর্তন আনতে হবে আপনার লুকে দেখে যেন মনে হয়না এখনো স্টুডেন্টই রয়ে গেছেন মানানসই একটা ফরমাল লুক আনার চেষ্টা করুন তীব্র পারফিউম ব্যবহারের অভ্যাস থাকলে পরিত্যাগ করুন। তার বদলে হালকা কিছু ব্যবহার করুন অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে, আপনি পার্টিতে যাচ্ছেন না, অফিসে যাচ্ছেন

আপনার চাকরিতে যে সেক্টরটা আপনাকে সামলাতে হবে সে বিষয়ে হাতে থাকা কয়েকদিন সাধ্যমতো বিস্তর পড়াশোনা করুন বসকে ইম্প্রেস করতে হবে! অফট্র‍্যাক জব হলে খাটুনিটা একটু বেশি হতে পারে কিন্তু মাথায় রাখতে হবে ফার্স্ট ইম্প্রেশন ইজ দ্যা লাস্ট ইম্প্রেশন!

সর্বশেষে নিয়ন্ত্রণে আনুন নিজের রাগকে। অফিসে অনেক রকমের মানুষ থাকবে। অনেকে হয়তো অনেক কথা বলবে কিন্তু সবসময়ই কথা নয়, নিজের কাজ দিয়ে প্রমাণ করতে হবে নিজেকে।

বিশেষ প্রতিনিধি, ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত



More news