বিকেল বেলার ঘুম ডেকে আনে অকাল মৃত্যু!!!



বিকেল বেলা কি প্রায়ই বাসায় থাকা হয়। সে সময় কি করে কাটান? ঘুমিয়ে নাতো? একটু আয়েশের ঘুম! তাহলে আপনাকে এবার একটু সচেতন হতেই হবে। কেননা, সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখানো হয়েছে বিকেল বেলার অতিরিক্ত ঘুম অকালে মৃত্যুবরণের অন্যতম কারণ।

বিকেলের ঘুমের এই মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাবের জোরালো প্রমাণ পাওয়া গেছে। ২১ রকমের অবজারভেশনাল স্টাডিজের মাধ্যমে ৩০৭,২৩৭ জন লোকের উপর করা হয় গবেষণাটিফলাফল স্বরূপ পাওয়া যায়, “বিকেলে নিয়মিত ৪৫ মিনিটের বেশি ঘুমালে মৃত্যুর ঝুঁকি বেড়ে যায় অনেকাংশে”।

এর কারণ হিসেবে দায়ী করা হয় অতিরিক্ত রক্তচাপ ও অতিরিক্ত কোলেস্টেরলের মাত্রাকে। ভাবছেন ঘুমের মধ্যে আবার অতিরিক্ত রক্তচাপ ও অতিরিক্ত কোলেস্টেরলের মাত্রা আসলো কোথা থেকে? ভাবনার কিছু নেই, বিকেলের ঘুমের সাথে এগুলোর খুব ভাল সম্পর্কই আছে!

আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলোজি’র বার্ষিক কনফারেন্সে প্রকাশিত গবেষণাটিতে আরও বলা হয়, ‘বিকেল বেলা ঘুমের কারণে দেহে কোলেস্টেরলের মাত্রা ও রক্তচাপ বেড়ে যায়, সেই সাথে হজমের সমস্যার পাশাপাশি ডায়বেটিসেরও সূত্রপাত ঘটায়। ফলাফল অকালে অক্কা পাওয়া’!

এখন প্রশ্ন হতে পারে তাহলে কি বিকেলে একদমই ঘুমানো যাবে না? এ বিষয়ে সমাধান দিতে ইউনিভার্সিটি অব টোকিওর পিএইচডি ডাইবেটোলজিস্ট ডাঃ তোমোহিদি তামাদা বলেন, “ঘুম আমাদের সুস্বাস্থ্যের জন্য খুবই দরকারি, খাওয়া এবং ব্যায়ামের মতই। পরিমিত ঘুম আমাদের স্বাস্থ্যে ক্ষতিকর না বরং ভাল প্রভাব ফেলে”। গবেষণাতেও বলা হয় বিকেল বেলার পরিমিত ঘুম কখনই ক্ষতির কারণ নয়। তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে- পরিমিত ঘুমটা কতক্ষণের?

গবেষণালব্ধ ফলফলে বলা হয়,‘কোনভাবেই ৪০ মিনিটের বেশি না’হ্যাঁ, মাঝে মাঝে শরীরকে একটু বেশি আয়েশ দিতে বিকেলে ৩০ মিনিটের একটা ছোট ঘুম দিতেই পারেন। ভয় নেই। এতে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়বে না।

ইন্ডিপেনডেন্ট ডট কো ডট ইউকে অবলম্বনে

More news